নিউজ ডেস্কঃ
চলতি টি-২০ বিশ্বকাপে দুরন্ত প্রত্যাবর্তন করল ভারতীয় ক্রিকেট দল। আজ স্কটল্যান্ডের বিরুদ্ধে ৮ উইকেটে জয়লাভ করে। সেইসঙ্গে নেট রানরেটের বিচারে পয়েন্ট টেবিলে তারা তৃতীয় স্থানে উঠে এল।

অবশেষে জন্মদিনেই টস ভাগ্য সহায় হল বিরাট কোহলির। আজ স্কটল্যান্ডের বিরুদ্ধে জয়লাভ করে তিনি প্রথমে ফিল্ডিং করার সিদ্ধান্ত নিয়েছিলেন। ফর্মূলা সেই একই। বিরাট স্পষ্ট জানিয়ে দেন, পরের দিকে মাঠে শিশির পড়বে বলেই তিনি প্রথমে ফিল্ডিং করার সিদ্ধান্ত নিয়েছিলেন। আজ ভারতের প্রথম একাদশে ছিলেন না শার্দূল ঠাকুর। তাঁর বদলে দলে এসেছিলেন বরুণ চক্রবর্তী।

শুরু হয় খেলা। স্কটল্যান্ড যে ভারতের সামনে খুব একটা বড় স্কোর খাড়া করতে পারবে না, সেটাই স্বাভাবিক ছিল। হলও তাই। ১৭.৪ ওভারে ৮৫ রানের মধ্যে গোটা দল অলআউট হয়ে যায়। সত্যি কথা বলতে কী, আজ স্কটল্যান্ডকে দেখেই মনে হচ্ছিল, ভারতের সামনে মাথা নত করতেই যেন তারা খেলতে নেমেছে। দলের হয়ে সবথেকে বেশি রান করেন ওপেনার জর্জ মানসে। তিনি ১৯ বলে ২৪ রান করেছেন। এরমধ্যে তিনি চারটে বাউন্ডারি এবং একটা ওভার বাউন্ডারি হাঁকিয়েছেন। এছাড়া মিডল অর্ডারে ব্যাট করতে নেমে ১২ বলে ২১ রান করেন মাইকেল লিস্ক।

ভারতীয় বোলারদের মধ্যে তিনটে করে উইকেট শিকার করেছেন মহম্মদ সামি এবং রবীন্দ্র জাদেজা। জোড়া উইকেট শিকার করেছেন ভারতীয় ক্রিকেট দলের পেসার জসপ্রীত বুমরাহ। এই প্রসঙ্গে আপনাদের জানিয়ে রাখি, টি-২০ ক্রিকেটে আপাতত ভারতীয় বোলারদের মধ্যে সর্বোচ্চ উইকেট শিকারি হিসেবে নাম লেখালেন বুমরাহ। ইতিপূর্বে ৬৩ উইকেট শিকার করে এই তালিকায় শীর্ষস্থানে ছিলেন যুজবেন্দ্র চাহাল। এই পরিস্থিতিতে ভারত যদি ৮.৫ ওভারের মধ্যে ৮৬ রান করতে পারত, তাহলে নিউজিল্যান্ডকে নেট রানরেটে পিছনে ফেলতে পারত। আর ৭.১ ওভারের মধ্যে লক্ষ্যমাত্রা পূর্ণ করতে পারলে, পিছনে চলে যেত আফগানিস্তানও।

একনজরে দেখে নেওয়া যাক পয়েন্ট তালিকা:

গ্রুপ ২
পাকিস্তান – ৪ – ৪ – ০ – +১.০৬৫ – ৮
নিউজিল্যান্ড – ৪ – ৩ – ১ – +১.২৭৭ – ৬
ভারত – ৪ – ২ – ২ – +১.৬১৯ – ৪
আফগানিস্তান – ৪ – ২ – ২ – +১.৪৮১ – ৪
নামিবিয়া – ৪ – ১ – ৩ – -১.৮৫১ – ২
স্কটল্যান্ড – ৪ – ০ – ৪ – -৩.৪৯৪ – ০

এমনই একটা কঠিন অঙ্ক মাথায় নিয়ে ব্যাট করতে নামলেন রোহিত শর্মা এবং কেএল রাহুল। আজ শুরু থেকেই রণংদেহী মূর্তিতে ছিলেন ভারতের এই দুই ওপেনার। মাত্র ১৯ বলে হাফসেঞ্চুরি পূরণ করেন কেএল রাহুল। ৬ বাউন্ডারি এবং ৩ ওভার বাউন্ডারি হাঁকিয়েছেন তিনি। অন্যদিকে ১৬ বলে ৩০ রান করেছেন রোহিত শর্মা। এই দুই ব্যাটসম্যান ফেরার পর আর বেশি কিছু করারও ছিল না। অবশেষে সূর্যকুমার যাদবের ব্যাট থেকে বেরিয়ে আসা বিশাল ছক্কায় জয় নিশ্চিত করে ভারত।

৬.৩ ওভারের মধ্যেই কাঙ্খিত জয় লাভ করে ভারতীয় ক্রিকেট দল। আর সেই সুবাদেই ভারতের নেট রানরেট অনেকটাই উপরের দিকে চলে এল। নেট রানরেটে নিউজিল্যান্ড এবং আফগানিস্তানকে পিছনে ফেলে দিয়েছে ভারত। আশা করা যেতেই পারে, আগামী ৮ নভেম্বর নামিবিয়াকেও হারাতে পারবে ভারত। তবে ভারত সেমিফাইনালে উঠতে পারবে কি না, সেটা পুরোপুরি নির্ভর করছে আফগানিস্তান-নিউজিল্যান্ড ম্যাচের উপরে। কারণ আফগানিস্তান যদি নিউজিল্যান্ডকে হারাতে পারে, তাহলে ভারত দ্বিতীয় স্থানে উঠে আসবে। আর নিউজিল্যান্ড যদি আফগানিস্তানকে হারিয়ে দেয়, তাহলে সেখানেই সব অঙ্ক শেষ হয়ে যাবে। নিউজিল্যান্ড বিশ্বকাপের সেমিফাইনালে উঠে যাবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *