নিউজ ডেস্কঃ
ভারতীয় দলের কোচের হটসিটে ফের দেখা যেতে পারে অনিল কুম্বলেকে। রবি শাস্ত্রী সরে দাঁড়ানোর ইঙ্গিত দেওয়ার পর এই জল্পনা ফের জোরাল হয়েছে। এর ফলে কোচিং কেরিয়ারে অনিল কুম্বলের একটা বৃত্ত সম্পূর্ণ হতে চলেছে। সূত্রের খবর, সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়ের সভাপতিত্বে BCCI অনিল কুম্বলেকে কোচ হিসেবে নেওয়ার ব্যাপারে ভাবনা চিন্তা শুরু করেছে।

তবে শুধু কুম্বলে একা নন। তাঁর সঙ্গে ভেসে উঠেছে ভারতের অপর প্রাক্তন তারকা ভিভিএস লক্ষ্মণের নাম। শোনা যাচ্ছে যে কুম্বলের না হলে লক্ষ্মণকেও দেখতে পারে BCCI। দীর্ঘদিন IPL ফ্র্যাঞ্চাইজি সানরাইজার্স হায়দরাবাদের সঙ্গে জড়িত আছেন লক্ষ্মণ। আবার CAB-র ভিশন ২০২০ প্রকল্পের সঙ্গেও যুক্ত আছেন তিনি।

শুধু দেশীয় কোচের দিকে লক্ষ্য না রেখে বিদেশি কোচও নিতে পারে BCCI। সেক্ষেত্রে বোর্ডের প্রথম পছন্দ প্রাক্তন শ্রীলঙ্কান তারকা মাহেলা জয়বর্ধনে। বর্তমানে মুম্বই ইন্ডিয়ান্স দলের কোচ তিনি। IPL-এ অন্যতম সফল দল মুম্বই। তবে শোনা যাচ্ছে, জয়বর্ধনে জাতীয় দল মুম্বই ইন্ডিয়ান্স। দুটো দলেই কোচিং করাতে চান। সেটা হলে ভারতীয় দলে তিনি কোচিং করাতে পারবেন না। বাদ সাধবে এক ব্যক্তি এক পদ নীতি। তবে সেক্ষেত্রে তিনি শ্রীলঙ্কা জাতীয় দলের কোচ হতে পারেন।

টি-২০ বিশ্বকাপ পর্যন্ত রবি শাস্ত্রীর সঙ্গে কোচ হিসেবে চুক্তি রয়েছে BCCI-এর। দীর্ঘদিন ধরে শোনা যাচ্ছিল শাস্ত্রী সরে যেতে পারেন। তাঁর বদলে আসতে পারেন রাহুল দ্রাবিড়। কিন্তু দ্রাবিড় NCA-তেই থাকতে চান বলে স্পষ্ট করে দিয়েছেন। গতকাল এক সংবাদমাধ্যমকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে রবি শাস্ত্রী জানান, তাঁর কোচ হিসেবে সব পাওয়া হয়ে গেছে, বেশিদিন তিনি এই পদে থাকতে চান না। এরপরই একাধিক নাম নিয়ে জল্পনা শুরু হয়।

বিশেষজ্ঞদের মতে রবি শাস্ত্রীর পরে কোচ হিসেবে প্রথম পছন্দ অনিল কুম্বলে। কারণ ২০১৬-১৭ সালে তিনি ভারতীয় দলে কোচিং করিয়েছেন। তৎকালীন ক্রিকেট পরামর্শদাতা কমিটির সুপারিশে কুম্বলেকে কোচ করা হয় শাস্ত্রীকে সরিয়ে। সেই কমিটির তিন মুখ ছিলেন সচিন তেন্ডুলকর, লক্ষ্মণ ও সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়।

তবে শুরুটা ভালো হলেও কুম্বলের কোচ হিসেবে যাত্রাটা সুখকর ছিল না। চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফির ফাইনালে পাকিস্তানের কাছে হারের পর বিরাট কোহলির সঙ্গে অনিল কুম্বলের ঝামেলার সৃষ্টি হয়। যারফলে কোচের পদ থেকে পদত্যাগ করতে বাধ্য হন অনিল কুম্বলে। এরপর ফের কোচের আসনে বসেন রবি শাস্ত্রী।

BCCI-এর সূত্রের খবর, অনিল কুম্বলের আগমন BCCI-এর কাছে ভালো সুযোগ দেবে অতীতের ভুল শুধরে দেওয়ার। কারণ বিরাট কোহলির সঙ্গে কুম্বলের ঝগড়াটা সকলের জানা। সেই ভুলের শোধরাতে BCCI কুম্বলেকে সুযোগ দিতে পারে। কিন্তু দেখতে হবে কুম্বলে বা লক্ষ্মণের মধ্যে কোচ হিসেবে কে ইচ্ছুক থাকে।

সবসময় ভারতীয় মুখকে কোচ হিসেবে দেখতে চায় BCCI। প্লেয়ার হিসেবে যার ভালো রেকর্ড আছে ও কোচ হিসেবেও ভালো অভিজ্ঞতা আছে। এমন মুখকেই চাইছে বোর্ড। যেই দুটোই আছে অনিল কুম্বলে ও ভিভিএস লক্ষ্মণের। সূত্রের খবর, ভারতীয় দলের বর্তমান ব্যাটিং কোচ বিক্রম রাঠোরও আবেদন করতে পারেন হেড কোচের জন্য। কিন্তু তাঁর শিকে না-ও ছিঁড়তে পারে। কারণ তিনি সরকারি কোচ। হেড কোচ হওয়ার অভিজ্ঞতা থাকলে তাঁর সুযোগ ছিল।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *