নিজস্ব সংবাদদাতাঃ
পুলিশ দিবস উপলক্ষে কোচবিহার সাগরদিঘী শহীদবাগ এলাকায় আয়োজন করা হয়েছিল এক বর্ণাঢ্য অনুষ্ঠানের। অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন কোচবিহার জেলা পুলিশ সুপার সুমিত কুমার, কোচবিহার জেলা শাসক পবন কাদিয়ান। কিন্তু এ কী হল? জেলা প্রশাসন ঘোষিত সাগরদিঘী এলাকা সাইলেন্ট জন্য হওয়ার পরেও সেখানে মাইক বাজিয়ে সরকারি অনুষ্ঠান উপস্থিত সরকারি দুই উচ্চপদস্থ আধিকারিক, বিতর্কে জড়াল কোচবিহার জেলা প্রশাসন। কোচবিহারের সাধারণ বাসিন্দা দীপক মহন্ত মন্তব্য করে বলেন, সাইলেন্ট জোন শুধুমাত্র সাধারণ মানুষের জন্য কার্যকর, প্রশাসনের ক্ষেত্রে নয়। এটা কিরকম আইন। মাইক বাজানো হলো, মাইক বাজিয়ে উদ্বোধনী সংগীত , স্বাগত ভাষণ এমনকি আধিকারিকরা ও মাইকের সামনে বক্তব্য দিলেন। সাইলেন্ট জোন উপেক্ষা করে এই মাইক বাজিয়ে সরকারি অনুষ্ঠান কতটা সাধারণ মানুষ গ্রহণ করবে তা নিয়ে প্রশ্ন ছিল থেকেই গেল।

দিনহাটা নৃপেন্দ্র নারায়ন স্মৃতি পাঠাগারে অনুষ্ঠিত হল এসএফআই দিনহাটা শহর ইউনিটের দ্বিতীয় সম্মেলন

দিনহাটা:
আজ দিনহাটা নৃপেন্দ্র নারায়ন স্মৃতি পাঠাগারে অনুষ্ঠিত হল এসএফআই দিনহাটা শহর ইউনিটের দ্বিতীয় সম্মেলন।এদিন সম্মেলন এর শুরুতে সংগঠনের পতাকা উত্তোলন করেন বিদায়ী সভাপতি সৌরভ সরকার।এরপর শহীদ বেদীতে পুষ্পার্ঘ্য নিবেদন করেন উপস্থিত নেতৃত্ব ও প্রতিনিধিরা।সম্মেলনের শুরুতে উদ্বোধনী সংগীত পরিবেশন করেন সংগঠনের সদস্যরা।এরপর সম্মেলনকে শুভেচ্ছা জানিয়ে উদ্বোধনী বক্তব্য রাখেন এসএফআই দিনহাটা আঞ্চলিক কমিটির সম্পাদক টুটুল সরকার।এছাড়াও সম্মেলনকে শুভেচ্ছা জানিয়ে বক্তব্য রাখেন এসএফআই রাজ্য সম্পাদক মন্ডলীর সদস্য শুভ্রালোক দাস,এসএফআই রাজ্য গার্লস টিমের প্রাক্তন সদস্যা সুদেবী সরকার,দিনহাটা আঞ্চলিক কমিটির সভাপতি অংশুমালি রায়,জেলা কমিটির সদস্য সৌভিক দে,আব্দুল মালেক পাটোয়ারী।সম্পাদকীয় প্রতিবেদনের ওপর ২০ জন প্রতিনিধি আলোচনায় অংশ নেয়।সম্মেলন থেকে ২১ জনের নতুন কমিটি গঠিত হয়।কমিটির নতুন সম্পাদক ও সভাপতি হিসেবে নির্বাচিত হয় পরীক্ষিত মন্ডল ও আকাশ সাহা।

আরও খবর পড়ুন….

ভোট-পরবর্তী সন্ত্রাসের তদন্তে তুফানগঞ্জে পৌছাল সিবিআই

কোচবিহারঃ
ভোট-পরবর্তী সন্ত্রাসের খুন হয় তুমুল কংগ্রেসের কর্মী শাহিনুর রহমান। রবিবার সেই ঘটনার তদন্তে তুফানগঞ্জ মহকুমার চিলায়াখানায় তার বাড়িতে আসে সিবিআই এর ১৬জনের দল বিশিষ্ট একটি প্রতিনিধি দল। একই সাথে একই ঘটনায় আহত তৃণমূল কংগ্রেস কর্মী রাজু সাহার পরিবারের সাথে দেখা করেন এই প্রতিনিধি দল। ঘটনায় ১৬ জনের বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের করা হয়েছিল তুফানগঞ্জ থানায়। এদের মধ্যে মূল অভিযুক্ত রামপাল, বাসুদেব পাল, চিরঞ্জিত দাস কে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। বর্তমানে এরা তিনজন জামিনে মুক্ত হয়েছেন।

প্রসঙ্গত,ভোট পরবর্তী হিংসায় নাটাবাড়ি বিধানসভা এলাকায় ৪ঠা মে চিলাখানা ২ গ্রাম পঞ্চায়েতের চিলাখানা হাইস্কুলের পাশে তৃণমূল কর্মী শাহিনুর রহমান নিখোঁজ হয় এবং ৫ ই মে সকাল বেলা চিলাখানা শাহিনুর রহমানের ক্ষত বিক্ষত অবস্থায় ভুট্টা খেত থেকে দেহ উদ্ধার হয়। এই নিয়ে রাজনৈতিক গন্ডগোল শুরু হয়। এবং তৃণমূল কর্মী খুনের অভিযোগে তুফানগঞ্জ থানায় রামপাল, বাসুদেব পাল, সহ তিনজন কে পুলিশ গ্রেপ্তার করে। এর পর তিন মাস জেল খাটার পর, হাইকোর্টের জামিনে বেরিয়ে আসেন। এদিন সিবিআই প্রতিনিধি দল প্রথমে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করার পর বিজেপি কর্মী রাম পালের বাড়িতে গিয়ে তদন্ত করেন ।

শাহিনুরের শ্রী নাহিদা পারভীন বলেন, পুলিশি তদন্তের সন্তুষ্ট না হওয়ার কারণেই আমরা সিবিআই তদন্তের দাবি জানিয়েছিলাম। সিবিআই তদন্ত করতে এসেছে। তবে তারা কি ধরনের তদন্ত করছে সেটা আমরা বুঝে উঠতে পারছিনা। একই সাথে বিজেপির তরফ থেকে ক্রমাগত হুমকি আসছে। পরিবার নিয়ে আমরা যথেষ্ট আতঙ্কিত। পুলিশ ঠিকভাবে ব্যবস্থা গ্রহণ করছে না। আমরা সিবিআই উপরে ভরসা রাখার চেষ্টা করছি। তাই একই ধরনের মন্তব্য করেন শাহিনুরের বোন। তার কথা অনুসারে, জামিনে ছাড়া পাওয়ার পর অভিযুক্তরা তাদের ওপর যথেষ্ট হুমকি বাজি চালিয়ে যাচ্ছে। আজ তারা সিরিআই প্রতিনিধি দের সাথে দেখা করেছেন। তাদের গোটা বিষয়টি বুঝিয়ে বলেছেন।
সিবিআই এর তরফ থেকে এখনো পর্যন্ত তদন্ত বিষয়ে কোনো রকম ইঙ্গিত পাওয়া যায়নি। তবে সূত্রের মাধ্যমে জানানো হয়েছে তারা আরও বেশ কয়েকদিন কোচবিহারে তদন্ত চালাতে পারেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *