আলিপুরদুয়ার: আলিপুরদুয়ার জেলার জংশন এলাকার বিবেকানন্দ ১নং গ্রাম পঞ্চায়েতের ১২/১৪৯নং বুথের তৃণমূল কংগ্রেসের যুব নেত্রী মৌসুমি রায়ের বাড়িতে ভোর রাতে হামলা হয় বলে অভিযোগ৷

মৗমুমি রায় জানান,ভোর রাতে তার ঘুমোচ্ছিল হঠাৎ একদল দুঃস্কৃতী এসে তার বাড়িতে ঢিল মারে তাদের নিশানা করে জানালা থাকায় ঢিল গুলো জানালায় লাগে ও জানালার কাচঁ গুলো ভাঙ্গা যায়৷ তিনি এও বলেন,যেহেতু তিনি তৃণমূল দল করেন তাকে দমিয়ে রাখতে এই কাজ গুলো বিজেপির আশ্রিত দুস্কিতীরা এই কাজ করেন৷

তবে এই অভিযোগ অস্বীকার করেছে বিজেপি নেতৃত্ব।

পরের খবর-সাহেবগঞ্জ বিডিও অফিসে হুল দিবস উদযাপন

পরের খবর পড়ুন……

বাজারে এল এবার ‘খেলা হবে’ চাল

বর্ধমান:
রাজনীতির ময়দান ছেড়ে এবার গৃহস্থের ঘরে প্রবেশ করল ‘খেলা হবে’। বাজারে এল এবার খেলা হবে চাল। ‘খেলা হবে’ স্লোগানকে সামনে রেখে বর্ধমানের বিখ্যাত মিনিকেট চাল বাজারজাতও করছেন এক ব্যবসায়ী দম্পতি। তাঁদের বক্তব্য,প্রতিকূলতার মধ্যে জয় হাসিলের আরেক নাম ‘খেলা হবে’। ব্যবসায়িক নানা প্রতিকূলতা সামলে লক্ষ্যে পৌঁছনোর অনুপ্রেরণা পেতেই ‘খেলা হবে’ স্লোগানকে সামনে রেখে এগিয়ে চলার লক্ষ্য নিয়েছেন ওই দম্পতি। তাঁদের এই চাল পাড়ি দিচ্ছে উত্তরপ্রদেশে।

তৃণমূল কংগ্রেসের যুব নেত্রীর বাড়িতে হামলা

উল্লেখ্য, পশ্চিমবঙ্গে একুশের নির্বাচনে ‘খেলা হবে’ স্লোগানকে হাতিয়ার করে মোদী বাহিনীর বিরুদ্ধে লড়াইয়ে নেমেছিল মমতা বাহিনী। শেষমেশ BJP-কে রুখে তৃতীয়বারের মতো ক্ষমতা ধরে রাখে তৃণমূল। সেই সাফল্যের কথা মাথায় রেখেই এই জনপ্রিয় স্লোগানকে এবার উত্তরপ্রদেশের নির্বাচনে কাজে লাগাচ্ছেন অখিলেশ যাদব। এই প্রেক্ষাপটে এবার খেলা হবে মিনিকিট চাল বাজার মাত করতে চলেছে উত্তরপ্রদেশে।সেখানের বিধানসভা নির্বাচনের আগেই হেঁসেলে হেঁসেলে খেলা হোক চাইছেন বর্ধমানের ব্যবসায়ী দম্পতি।

পরের খবর-দিনহাটা সিদ্ধেশ্বর সাহা এডুকেয়ার এন্ড ফাউন্ডেশন এর উদ্যোগে রক্তদান শিবির

বর্ধমানের চাল ব্যবসায়ী অরিন্দম কুন্ডু ও তাঁর স্ত্রী তনয়া বলছেন, ‘আমরা দিদির অনুগামী। দিদি ভাঙা পা নিয়ে দেখিয়ে দিয়েছেন। তাই খেলা হবে স্লোগান আমাদের কাছে অনেক বেশি অনুপ্রেরণার। এই ব্যবসায় অনেক প্রতিকূলতা রয়েছে। খেলা হবে স্লোগানকে সামনে রেখে আমরা এই খেলায় জয়ী হবই, এই আত্মপ্রত্যয় নিয়েই এগিয়ে যেতে চাইছি। জেলায় তো বটেই রাজ্যজুড়ে আমাদের এই চালের চাহিদা বাড়ছে। এবার গুণমান বজায় রেখে উত্তর প্রদেশ সহ অন্য রাজ্যেও পৌঁছে যেতে চাইছি আমরা’।

রাজ্যের শস্যভান্ডার পূর্ব বর্ধমান জেলা। দেশের অন্যতম ধান উৎপাদক জেলাগুলির মধ্যে অন্যতম বর্ধমান। এ রাজ্যের সীমানা ছাড়িয়ে বর্ধমানের চাল প্রশংসা কুড়িয়েছে মুম্বই, দিল্লি, হায়দরাবাদে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *