কোচবিহারঃ
ক্রমবর্ধমান পেট্রোপণ্যের মূল্যবৃদ্ধি এর প্রতিবাদে শনিবার কোচবিহার জেলা জুড়ে দফায় দফায় বিক্ষোভ কর্মসূচি পালন করল তৃণমূল কংগ্রেস। কর্মসূচির সূচনা হয় রাজ্য তৃণমূল সহ-সভাপতি রবীন্দ্রনাথ ঘোষ এর হাত ধরে। সকালেই জেলা তৃনমূল কার্যালয়ের সামনে বিক্ষোভ কর্মসূচিতে বসেন তিনি। জেলা তৃণমূল নেতৃত্ব জানান, সকাল দশটা থেকে শুরু হওয়া এই অবস্থান কর্মসূচি চলবে বিকেল চারটে পর্যন্ত। এদিন বক্তব্য রাখতে গিয়ে রবীন্দ্রনাথ ঘোষ বলেন, রাজ্য নেতৃত্বে নির্দেশে গোটা বাংলা জুড়ে পেট্রোলের মূল্যবৃদ্ধির প্রতিবাদে আন্দোলন চলছে। কোচবিহার জেলাতেও আজ অবস্থান বিক্ষোভ কর্মসূচি পালিত হচ্ছে। ক্রমবর্ধমান পেট্রোপণ্যের মূল্যবৃদ্ধি সাধারণ মানুষের জীবনকে দুর্বিষহ করে তুলেছে।

কেন্দ্রের এই জনবিরোধী সরকার অবিলম্বে পদত্যাগ করুক এই দাবি উঠে আসছে অবস্থান-বিক্ষোভ মঞ্চ থেকে। একসাথে রবীন্দ্রনাথ ঘোষ উত্তরবঙ্গ কে আলাদা রাজ্য হিসেবে দাবী করার বিরুদ্ধে কটাক্ষ করেন। তিনি বলেন, পিছিয়ে পড়া উত্তরবঙ্গকে বিগত 10 বছরে রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় সেভাবে উন্নয়নে আলো নিয়ে এসেছে তা অবশ্যই প্রশংসার দাবি রাখে। যারা উত্তরবঙ্গ কে অনুন্নয়ন এর আখ্যা দিয়ে আলাদা করতে চাইছে তারা বাংলার মানুষের সঙ্গে দীর্ঘদিন প্রতারণা করে এসেছে। শুধুমাত্র দ্রব্যমূল্য বৃদ্ধি নয় মানুষের মৌলিক অধিকার এবং নাগরিকত্ব নিয়েও তারা প্রতারণা করেছে। সুতরাং এক বিন্দু রক্ত শরীরে থাকতে উত্তরবঙ্গ রাজ্য হতে দেবো না, ইতিমধ্যেই এই ঘোষণার মূল কংগ্রেস থেকে করা হয়েছে বলে জানান প্রাক্তন উত্তরবঙ্গ উন্নয়ন মন্ত্রী তথা উত্তরবঙ্গের তৃণমূল কংগ্রেসের কান্ডারী রবীন্দ্রনাথ ঘোষ।

অনান্য খবর- পেট্রোপণ্যের মূল্যবৃদ্ধিতে কোচবিহার জেলা জুড়ে তৃণমূলের অবস্থান বিক্ষোভ কর্মসূচি

পেট্রোপণ্যের মূল্যবৃদ্ধিতে কোচবিহার জেলা জুড়ে তৃণমূলের অবস্থান বিক্ষোভ কর্মসূচি

একইসাথে এদিন কোচবিহার ঘাস বাজারে ফুটপাতে শহর তৃণমূল কংগ্রেসের ডাকে বিক্ষোভ কর্মসূচি পালিত হয়। এই কর্মসূচির নেতৃত্ব দেন জেলা তৃণমূল সভাপতি পার্থ প্রতিম রায়। তিনি বলেন, তৃণমূল কংগ্রেস সর্বদা মানুষের পাশে ছিল, মানুষের সুখে-দুঃখে আপদে-বিপদে তৃণমূল কংগ্রেসই একমাত্র সঙ্গী। কেন্দ্রীয় সরকারের ক্রমবর্ধমান মূল্যবৃদ্ধিতে মানুষের জীবন হয়ে উঠেছে দুর্বিষহ। এই জনবিরোধী নীতি কোন অবস্থাতেই মানা সম্ভব নয়। রাজ্য নেতৃত্বে নির্দেশে গোটা রাজ্যের পাশাপাশি কোচবিহার জেলাতেও পেট্রোপণ্য মূল্যবৃদ্ধি রান্নার গ্যাস পেট্রোল ডিজেল এর বর্তমান মূল্যের ঊর্ধ্বগতি অবিলম্বে কমানোর দাবিতে আজকের এই অবস্থান বিক্ষোভ।
একই সাথে এই ঋণ মেখলিগঞ্জে ও অবস্থান কর্মসূচি পালন করেন রাজ্যের শিক্ষা দপ্তরের প্রতিমন্ত্রী পরেশ অধিকারী। বিক্ষোভ কর্মসূচি পালিত হয় দিনহাটা বিধানসভা এলাকাতেও।

অনান্য খবর- পেট্রোপণ্য মূল্যবৃদ্ধির প্রতিবাদে আলিপুরদুয়ারে পেট্রোল পাম্পে অভিনব কায়দায় বিক্ষোভে জেলা কংগ্রেস

প্রতিটি অবস্থান কর্মসূচিতে আমরা কর্মীসংখ্যা কে নিয়ন্ত্রিত রাখার চেষ্টা করেছি।

নেতৃত্ব দেন প্রাক্তন বিধায়ক তথা দিনহাটা পৌরসভার প্রশাসক উদয়ন গুহ। মাথাভাঙ্গা ঘোকসাডাঙ্গা তেও প্রাক্তন মন্ত্রী তথা তৃণমূল কংগ্রেসের জেলার চেয়ারম্যান বিনয় কৃষ্ণ বর্মন এর নেতৃত্বে ও অবস্থান বিক্ষোভ কর্মসূচি পালিত হয়। পার্থ প্রতিম রায় বলেন, প্রতিটি অবস্থান কর্মসূচিতে আমরা কর্মীসংখ্যা কে নিয়ন্ত্রিত রাখার চেষ্টা করেছি। সেই সাথে সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে করণা আবহে নির্দেশিকাগুলি কে মান্যতা দিয়ে আমরা অবস্থান বিক্ষোভ কর্মসূচি পালন করছি। যদিও বা কুচবিহার শহরে দুই জায়গায় অবস্থান কর্মসূচি পালনে দুই নেতার উপস্থিতিতে কেন্দ্র করে গোষ্ঠী অন্তর্কলহে র অভিযোগ উঠেছে।

অনান্য খবর- আত্মার শান্তির কামনার পথ ডুয়ার্সের “ফলাইচা”

পার্থ প্রতিম রায় বলেন, রবীন্দ্রনাথ ঘোষ রাজ্য স্তরের নেতা তিনি আলাদাভাবে এর কর্মসূচি পালন করছেন। আমরাও রাজ্য নেতৃত্বে নির্দেশে আলাদাভাবে কর্মসূচি পালন করছি। এখানে কোন বিরোধ নেই। মানুষের স্বার্থে তৃণমূল কংগ্রেসকে সদা সর্বদা অন্যায়ের বিরুদ্ধে লড়াই করে যাবে। এটাই তৃণমূল কংগ্রেসের অঙ্গীকার তথা রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী তৃণমূল সুপ্রিমো মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের অঙ্গীকার।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *